Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সাধারণ তথ্য

জমি রেজিস্ট্রেশনের নিয়মকানুন-

সব দলিল রেজিস্ট্রি করা বাধ্যতামূলক। আইন অনুযায়ী দলিল রেজিস্ট্রি করা হলে মালিকানা নিয়ে কোনো ঝামেলা থাকেনা। কেউ অবৈধ উপায়ে দখল করতে চাইলেও বিরোধ এড়ানো যায়। এ ছাড়া জমি রেজিস্ট্রি করা থাকলে পরে বিক্রি, দান ও উইল করতে সহজ হয়।

 

কোন কোন দলিল রেজিস্ট্রি করতে হয়?

*বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে দলিল অবশ্যই রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। যেমন-বিক্রয় দলিল অবশ্যই রেজিস্ট্রি করতে হবে।

*জমি ক্রয় করার আগে বায়না দলিল করলে ৩০ দিনের মধ্যে রেজিস্ট্রেশনর জন্য জমা দিতে হবে। রেজিস্ট্রি ছাড়া বায়না দলিলের আইনগত মূল্য নেই।

* বায়না দলিল রেজিস্ট্রির তারিখ থেকে এক বছরের মধ্যে বিক্রয় দলিল সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে দাখিল করতে হবে।

*হেবা বা দানকৃত সম্পত্তির দলিলও রেজিস্ট্রি করতে হবে।

*বন্ধককৃত জমির দলিল রেজিস্ট্রি করতে হবে।

*কোনো ভূমি সম্পত্তি মালিকের মৃত্যু হলে তার উত্তরাকারীদের মধ্যে তার রেখে যাওয়া সম্পত্তি বাটোয়ারা করা এবং ওই বাটয়ারা বা আপস বন্টননামা রেজিস্ট্রি করতে হবে।

 

কী কী লাগবে-

*জমি রেজিস্ট্রি করতে বিক্রিত জমির পূ্ণ বিবরণ উল্লেখ থাকতে হবে।

*দলিলে দাতাগ্রহীতার পিতা-মাতার নাম, পূণ ঠিকানা এবং সম্প্রতিক ছবি সংযুক্ত করতে হবে।

*যিনি জমি বিক্রয় করবেন, তার নামে আবশ্যই উত্তরাধিকার ছাড়া নামজারি থাকতে হবে।

*দলিলে বিগত ২৫ বছরের মালিকানাসংক্রান্ত সংক্ষিপ্ত বিবরণ ও কার কাছ থেকে কে কিনল সে বিবরণ লেখা থাকতে হবে।

*সম্পত্তির প্রকৃত মূল্য, সম্পত্তির চারদিকের সীমানা, নকশা দলিলে থাকতে হবে।

*যিনি কিনছেন তিনি ছাড়া অন্য কারো কাছে এই  জমি বিক্রি করা হয়নি মম্মে হলফনামা থাকতে হবে।

*জমির পচাগুলোতে সিএস, আরএস মালিকানার ধারাবাহিকতা (কার পরে কে মালিক ছিল) থাকতে হবে।

*প্রয়োজন হলে বায়া দলিল সংযুক্ত করতে হবে।

 

রেজিস্ট্রির আইন ও ফি-

দলিল রেজিস্ট্রি করা হয় রেজিস্ট্রেশন আইন, ষ্ট্যাম্প আইন, আয়কর আইন, অথ আইন ও রাজস্বসংক্রন্ত বিধি এবং পরিপত্রের আলোকে। সব দলিলের রেজিস্ট্রি ফি সমান নয়। বিভিন্ন সময় সমসাময়িক বিবেচনা অনুযায়ী রেজিস্ট্রি ফি নিধারণকরে থাকে।

 

কর দেওয়ার নিয়ম-

ভ্যাট ও উৎস কর সব সময় জমি বিক্রেতা প্রদান করবে। আয়কর আইনমতে , এ দুই ধরনের করের পরিমান বিক্রেতার আয়ের ওপর নিভর করবে। এই কর বিক্রেতার নামে সরকারি কোষাগারে জমা দিতে হয়। উৎসে কর ও ভ্যাট ছাড়া অন্য সব ধরনের কর জমি ক্রেতাকেই পরিশোধ করতে হবে।

 

আরো জেনে রাখা প্রয়োজন-

*প্রতিটি উপজেলায় সাব-রেজিস্ট্রি অফিস আছে। সেখানে জমি রেজিস্ট্রি করা হয়।

*ইউনিয়ন ভূমি অফিস ও উপজেলা ভূমি অফিসে বিক্রিত জমির তফসিল নিয়ে জমিটি আগে বিক্রি হয়েছে কি না, আগে অন্য কারো নামে নামজারি আছে কি না, বিক্রয়ে উল্লেখিত দাগ, খতিয়ান, নকশা ঠিক আছে কি না এবং সবোপরি সরেজমিন বিক্রিত জমি আছে কি না তা খোঁজ পাওয়া যাবো প্রয়োজনে ভূমি অফিস থেকে সাভেয়ার (আমিন) নিয়ে জমি মেপে জমি ক্রয় করতে হবে।

*উত্তরাধিকার সূত্রে সম্পত্তি ছাড়া সব সম্পত্তি বিক্রয় করার ক্ষেত্রে দাতার নামে নামজারি বাধ্যতামূলক।

*২০০৪ সালের রেজিস্ট্রেশন আইন সংশোধনের পর মৌখিক দান বৈধ নয়।

ফিসের তালিকা

১।         এ ফিস

(ক)       দলিলের মূল্য ৫০০০/- টাকা পযন্ত ১০০/- নিধারিত।

(খ)        ৫০০/- টাকার অধিক মূল্যের জন্য ২% হারে।

(গ)        (i) ঝণের অথ ৫,০০,০০০/- টাকা পযন্ত ১% হারে কিন্তু ২০০/- টাকার কম এবং ৫০০/- টাকার         অধিক নহে।

(ii)      ৫,০০,০০০/- টাকার উদ্ধে ২০,০০,০০০/- টাকা পযন্ত .২৫% হারে কিন্তু ১৫০০/- টাকার কম এবং ২০০০/- টাকার অধিক নহে।

(iii)    ২০,০০,০০০/- টাকার উদ্ধে .১০% কিন্তু ৩০০/- টাকার কম এবং ৫০০০/- টাকার অধিক নহে।

(ঘ)        (i)বায়নাকৃত সম্পত্তির মূল্য ৫ লক্ষ পযন্ত ৫০০/- টাকা নিধারিত।

(ii)      ৫ লক্ষ টাকার উদ্ধে ৫০ লক্ষ পযন্ত  ১০০০/- টাকা নিধারিত।

(iii)    ৫০ লক্ষ টাকার উদ্ধে ২০০০/- টাকা নিধারিত।

 

(ঙ)        হেবা ঘোষণা বা দানের ঘোষণা পত্র  ১০০/- টাকা নিধারিত।

 

সি ফিস- C(iii)উইল, অছিয়ত(রদসহ) ২০০/- টাকা নিধারিত।

ই ফিস-  দলিল প্রতি ১০০/- টাকা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

এফ-১  সূচী বহি তল্লাশের জন্য প্রতি বৎসর ১০/- টাকা হারে তবে শত থাকে যে কোন নিদিষ্ট অফিসের কোন একজন ব্যাক্তির নাম বা সম্পত্তির সূচীপত্র সমূহ তল্লাশের জন্য ফি ৮০/- টাকার অধীক হইবে না।

 

এফ-২  প্রতি দলিলের জন্য ৫/- টাকা।

জিএ-   ১) বাংলা প্রতি ১০০ শব্দ বা অংশের জন্য ৩/- টাকা।

            ২ ) ইংরেজি প্রতি ১০০ শব্দ বা অংশের জন্য ৫/- টাকা।

জিবি (জরুরী নকল)-     ১) বাংলা প্রতি ৩০০ শব্দ হইতে ১২০০ শব্দ পযন্ত ২০/- টাকা নিধারিত।

                                    ২ ) ১২০০ শব্দের অধিক প্রতি ৩০০ শব্দ বা অংশের জন্য ৫/- টাকা।

 

জে ফিস (ভিজিট/কমিশন)-       দলিল প্রতি ৩০০/- টাকা।

 

কে ফিস (কমিশন)-                  দলিল প্রতি ২০০/- টাকা।

এল (১)-                                               খাষ মোক্তার- ১০০/- টাকা নিধারিত।

এল (২)-                                      আমমোক্তার- ২০০/- টাকা নিধারিত।

এম এ-                                    একই জেলায় ভিন্ন উপজেলায় দলিলের জন্য ১০/- টাকা নিধারিত।

এম বি-                                    ভিন্ন জেলার জন্য অতিরিক্ত ৬০/- টাকা নিধারিত।

এন ফিস-                           কোন দলিলে ৬০০ শব্দের অধিক শব্দ থাকিলে অতিরিক্ত প্রতি ৩০০ শব্দ বা তাহার অংশের জন্য ৪০/- টাকা হারে।

ও ফিস-                                    দলিল সমাপ্ত হইবার তারিখ হইতে ১ মাসের অধিক কাল পরিয়া থাকিলে প্রতি ১মাস বা তাহার অংশের জন্য ৩/- হারে সবচ্চ ৫০/- টাকা।

 

ষ্ট্যাম্প শুল্ক

 

১। কবলা, দানপত্র, এওয়াজ বদল- ৩% হারে।

২। হলফনামা- ২০০/- নিধারিত।

৩। চুক্তিপত্র, ভ্রম সংসোধন, বাতিল ও নাদাবী- ২০০/- নিধারিত।

৪। (i) বন্ধক ২০ লক্ষ টাকা পযন্ত-  ২০০০/- নিধারিত।

    (ii)বন্ধক ২০ লক্ষ টাকার উদ্ধে ১ কোটি পযন্ত-  ৫০০০/- নিধারিত।

    (iii)১ কোটি টাকার উদ্ধে- ০.১০%+৫০০০/- হারে।

৫। ক)(i)বিশেষ পাওয়ার অব অ্যাটনি- ৫০০/- টাকা।

  (ii)সাধারণ পাওয়ার অব অ্যাটনি- ১০০০/- টাকা।

  (iii)অপ্রত্যাহার যোগ্য পাওয়ার অব অ্যাটনি (ব্যাংক/আথিক প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে) - ১০০০/- টাকা।

    খ) (i)অপ্রত্যাহার যোগ্য পাওয়ার অব অ্যাটনি (পণমূল্যের ব্যতীত) ১০০০/- টাকা।

                 (iii)অপ্রত্যাহার যোগ্য পাওয়ার অব অ্যাটনি (পণমূল্যের বিনিময়ে প্রদত্ত) পণমূল্যের ৩% যা ৬০০০/- টাকার কম এবং ৬০,০০০/- টাকার উদ্ধে নহে।

৬। ওয়াকফ- ২% হারে।

৭। হেবাঘোষণা বা দানের ঘোষণা- ২০০/ নিধারিত।

৮। টাষ্ট- ২% হারে।

৯। বন্টননামা- ৫০/- টাকা নিধারিত।